বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রিয় ফরম্যাট একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ। অন্য দুই ফরম্যাটে ভালো না করলেও এই ফরম্যাটে রয়েছে বলার মতো অনেক স্মৃতি।তারপরও আফগানিস্তানের বিপক্ষে দলের এমন অবস্থা মানতে পারছেন না বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপন। যদিও মিরাজ-আফিফের নৈপুণ্যে দলের জয় এসেছে ঠিকই।

খেলা শেষে সাংবাদিকদের পাপন বলেন, আফগানিস্তানের সঙ্গে আমরা জিতবো, আমার মত সবাই ভেবেছে। তবে এমন পরিস্থিতিতে পড়বো তা কখনও কল্পনায় ছিল না। আমাদের দুই ইয়ং স্টার যা দেখিয়েছে তা অবিশ্বাস্য। নতুন প্রজন্মের জন্য এটি ভালো সংবাদ হতে পারে। মেহেদি-আফিফ অসাধারণ ইনিংস খেলেছে। কিন্তু কয়েকটা আউট এত বাজে ছিল বলার মতো না।

দেশের উইকেট নিয়ে বরাবরই প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে বিসিবিকে। আজও টপ অর্ডারের ব্যর্থতার পেছনে উ্ইকেট কারণ কিনা- সাংবাদিকরা জানতে চান বিসিবি বসের কাছে। এমন ব্যর্থতা উইকেটের কারণে নয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, আমার কাছে মনে হয়নি উইকেট কোনো ইস্যু হতে পারে। এমন তো না যে এসব উইকেটে আগে কখনোও খেলেনি বাংলাদেশ দল। এসব মাঠে আমাদের খেলার অভিজ্ঞতা অনেক বেশি। আমার কাছে মনে হয়েছে উইকেট খুব ভালো ছিল। কিন্তু উইকেট ভালো হয়েও কোনো লাভ হয়নি। দল যে অবস্থায় ছিল আমরা হেরে যেতে পারতাম। যদি আফিফ-মেহেদি ভালো না খেলতো। তারা বলের মেরিট অনুযায়ী খেলেছে। কোনো বাজে শট খেলেনি। এগ্রেসিভ খেলেছে তাও না। যখন যে বলে, যেভাবে খেলা দরকার সেভাবেই খেলেছে।

নবী, রশিদ খানকে নিয়ে কাজ করলেও অন্যান্য খেলোয়াড়দের নিয়ে কোনো কাজ না করার এমন অবস্থা হয়েছে বলে মনে করছেন নাজমুল হাসান পাপন। তার মতে, বাংলাদেশ দলে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন খেলোয়াড় রয়েছে। তাদের সক্ষমতা আছে ম্যাচ জেতানোর। তবে আফগানিস্তানকে হালকা করে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।