সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো হয়ে উঠেছে নিত্য জীবনের সঙ্গী। কাজের মাঝে একটু পর পর ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে ঢুঁ না মারলে যেন চলেই না। তবে এই একটু ঢুকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কেটে যায় নিউজফিড স্ক্রোল করতে করতে। এদিকে অন্য কাজেরও ক্ষতি হচ্ছে।

বিশেষ করে যারা কিশোর-কিশোরী, পড়ার সময়টুকুর বেশিরভাগই ব্যয় করে ফেলছেন এসব সাইটে। এছাড়া সোশ্যাল মিডিয়ায় অতিরিক্ত সময় কাটানোর প্রভাব পড়তে পারে শরীরে। কিছুদিন আগেই ব্যবহারকারীদের সেই ক্ষতি রুখতে সক্রিয় হয়েছিল ইনস্টাগ্রাম। প্ল্যাটফর্মটি নিয়ে আসে বিরতির ঘণ্টা বা ‘টেক এ ব্রেক’ ফিচার।

কোনো ব্যবহারকারী একটানা আধাঘণ্টা বা তার বেশি সময় ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করলে আর্টিফিসিয়াল ইনটালিজেন্সের মাধ্যমে পপ আপ নোটিফিকেশন আসবে তার কাছে। সেখানেই জানানো হবে এবার বিরতি নেওয়া প্রয়োজন। কারণ একটানা অনেকক্ষণ সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেছেন।

এবার সেই সময়কে আরও বাড়াতে পারে ইনস্টাগ্রাম। মেটার মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘টেক এ ব্রেক’ অপশনের মাধ্যমে ইউজারদের রিমাইন্ডার দেওয়া হবে তারা যদি একটানা ১০ কিংবা ২০ মিনিট ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করে। বেশি হলে এই সময় ছিল সর্বোচ্চ ৩০ মিনিট। অর্থাৎ একটানা ৩০ মিনিটের বেশি ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করলেই ব্যবহারকারী বিরতির সংকেত পাবেন।

ইনস্টাগ্রামে বর্তমানে দুই ধরনের টাইম ম্যানেজমেন্ট ফিচার রয়েছে। একটি হলো ডেইলি টাইম লিমিট ও অন্যটি টেক এ ব্রেক। ইনস্টাগ্রামের এই ডেইলি টাইম লিমিট অপশন পরিবর্তন করা হতে পারে। এর মাধ্যমে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে ৩০ মিনিটের অপশন। বাড়ানো হতে পারে সেই সময়।

একটানা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করার সময় ব্যবহাকারীদের রিমাইন্ড দেওয়া হবে একটা ব্রেক নেওয়ার জন্য। এই ফিচারের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময় অন্তর ইউজারদের রিমাইন্ড দেওয়া হবে। এটি যেন ব্যবহাকারীদের নজরে আসে তার জন্য ফুল স্ক্রিন জুড়ে দেওয়া হবে রিমাইন্ড। ব্যবহাকারীরা নিজেদের সুবিধা অনুযায়ী এটি শিডিউল করে রাখতে পারবেন।