করোনার টিকাদানে বাংলাদেশ বিশ্বের ২০০টি দেশের মধ্যে ১০তম অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।  

মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টার দিকে রাজধানীর মহাখালীতে কলেজ অব ফিজিসিয়ান অ্যান্ড সার্জন্স প্রাঙ্গণে ‘সারাদেশে একদিনে এক কোটি কোভিড ভ্যাকসিন দেওয়া কর্মসূচি’ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

জাহিদ মালেক বলেন, আমরা করোনার প্রথম ডোজ ১০ কোটি ৩৩ লাখ টিকা দিয়েছি। সাত কোটি ৮০ লাখ দ্বিতীয় ডোজ টিকা দিয়েছি। ৩২ লাখ বুস্টার ডোজ টিকা দিয়েছি। মোট সাড়ে ১৮ কোটি ডোজ টিকা আমরা দিয়েছি। শিক্ষার্থীদের আমরা প্রায় দেড় কোটি ডোজ টিকা দিয়েছি।  

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ব্লুমবার্গ বলেছে গ্লোবাল ভ্যাক্সিনেশন প্রোগ্রামে বাংলাদেশ বিশ্বের ২০০টি দেশের মধ্যে দশম অবস্থানে রয়েছে। ভ্যাকসিন কার্যক্রমে বাংলাদেশ বিশ্বের ১০ নম্বর অবস্থানে রয়েছে এটা আমাদের জন্য অনেক সন্তুষ্টির বিষয়।  

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে জাহিদ মালেক বলেন, ২৬ তারিখে একদিনে এক কোটি টিকাদান কর্মসূচি শেষে আমরা দ্বিতীয় ও বুস্টার ডোজে বেশি জোর দেব। সেজন্যই আমরা সবাইকে আহ্বান করছি তারা যেন এ সুযোগে টিকা গ্রহণ করেন। টিকা কার্যক্রম চলমান থাকবে।

মন্ত্রী বলেন, যারা এখনো করোনার টিকা গ্রহণ করেনি। তারা যে অবস্থাতেই আসুক না কেন আমরা তাদের টিকা দেব। কারো যদি পরিচয়পত্র কিংবা জন্ম নিবন্ধন না থাকে তাহলে তার মোবাইল নম্বর দিয়ে আমরা তাকে টিকা দিয়ে দেব। কারো কাছে যদি মোবাইল না থাকে তাহলে আমরা নিজেরাই নিবন্ধন করে তাকে টিকা দিয়ে দেব।  

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশিদ আলম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রসাশন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির, ডা. দীন মোহাম্মদ প্রমুখ।