গত ১৩/০৫/২০২১খ্রিঃ তারিখ রাত ০০:০১ হতে ০৮:০০ ঘটিকা পর্যন্ত খুলনা মহানগরীর খুলনা থানাধীন পিটিআই মোড়স্থ প্রাইমারি ট্রেনিং ইনষ্টিটিউট (পিটিআই) এর  মহিলা হোস্টেলে ভারত ফেরত বাংলাদেশী নাগরিকদের ১৪(চৌদ্দ) দিনের কোয়ারেন্টাইনের জন্য স্থাপিত অস্থায়ী প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে অবস্থানরতদের নিরাপত্তা ডিউটিতে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রসিকিউশন বিভাগে কর্মরত এএসআই (নিঃ)/৪১০৬ মোকলেছুর রহমান (বিপি নং-৭৭৯৭০৪৭২১০) নিয়োজিত ছিলেন। ডিউটিতে থাকাকালীন উক্ত এএসআই (নিঃ)/৪১০৬ মোকলেছুর রহমান নিচতলা হতে ২য় তলায় কোয়ারেন্টাইনে অবস্থানরত খুরশিদা খুশি (২২), পিতা-গাজী লুৎফর রহমান, সাং-মশিয়ালী, থানা-খানজাহান আলী, খুলনা মহানগরীর কক্ষে বিনা অনুমতিতে প্রবেশ করে তার মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরর্বতী দিন অর্থাৎ ১৫/০৫/২০২১ তারিখ রাত্র অনুমান ০০.২০ ঘটিকায় আসামী আবার ভিকটিমের রুমে এসে পুনরায় মেলামেশা করতে চাইলে ভিকটিম চিৎকার করলে আসামী দ্রুত নিচে চলে যায়। উক্ত বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তপক্ষের নজরে আসলে সত্যতা যাচাইয়ের জন্য প্রাথমিক অনুসন্ধান করা হয়। অনুসন্ধানকালে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পরিলক্ষিত হলে কেএমপি’র প্রসিকিউশন আদেশ নং-১৭৬, তারিখ-১৬/০৫/২০২১ খ্রিঃ মূলে এএসআই (নিঃ)/৪১০৬ মোকলেছুর রহমান (বিপি নং-৭৭৯৭০৪৭২১০) কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। অতঃপর উক্ত ঘটনায় বাদীর লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে খুলনা থানার মামলা নং-১৩, তারিখ-১৭/০৫/২০২১, ধারা-নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯(৫) রুজু করা হয়। এ সংক্রান্তে আসামী এএসআই (নিঃ)/৪১০৬ মোকলেছুর রহমান’কে (সাময়িক বরখাস্ত কৃত) গ্রেফতার পূর্বক আদালতে প্রেরণ করা হয়। মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।