খুলনা বিভাগের বাগেরহাট, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা ও নড়াইল জেলায় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা কর্মসূচির আওতায় করোনায় কর্মহীনদের মাঝে আজ (মঙ্গলবার) নগদ অর্থ ও ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

    চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ পর্যন্ত ২৩ হাজার দুইশত ২৩ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে  এক কোটি পাঁচ লাখ ৬৩ হাজার টাকার খাদ্যসামগ্রী এবং ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় ৫৩ হাজার আটশত ২৫ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে দুই কোটি ৪২ লাখ দুই হাজার একশত ২৫ টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।

    নড়াইল জেলা প্রশাসন এ পর্যন্ত ২৪ হাজার নয়শত ৫৪ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে  এক কোটি ২০ লাখ ৯৩ হাজার টাকার খাদ্যসামগ্রী এবং ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় সাত হাজার ছয়শত ৭৮ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে তিন কোটি ৪২ লাখ ৩৫ হাজার একশত টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। দুই হাজার ৭৭ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ করা হয়। এছাড়া ৩৩৩ কল এর মাধ্যমে ৩০টি পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। 

    মেহেরপুর জেলায় এ পর্যন্ত ১৩ হাজার দুইশত ৫০ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে ৫৯ লাখ ৬২ হাজার পাঁচশত টাকার খাদ্যসামগ্রী এবং ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় ১৫ হাজার দুইশত ৫০ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে ৬৮ লাখ ৬২ হাজার পাঁচশত টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। এছাড়া ৩৩৩ কল এর মাধ্যমে ১৫টি পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। 

    বাগেরহাট জেলায় এ পর্যন্ত ৪০ হাজার পাঁচশত উপকারভোগী পরিবারের মাঝে দুই কোটি দুই লাখ ৫০ হাজার টাকার খাদ্যসামগ্রী এবং ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় এক কোটি ৭২ লাখ আটশত ৮৮ উপকারভোগী পরিবারের মাঝে সাত কোটি ৭৮ লাখ চার হাজার পাঁচশত ৫০ টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। এছাড়া ৩৩৩ কল এর মাধ্যমে একশত ২২টি পরিবারকে খাদ্যসহায়তা প্রদান করা হয়। 

    কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া নয়টি উপকারভোগী পরিবারের মাঝে নয় হাজার টাকার খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে।

খুলনা বিভাগের অন্যান্য জেলাগুলোতে অনুরূপ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।