ডুবতে থাকা বার্সেলোনা ধীরে ধীরে ফর্মে ফিরছে। লা লিগায় ভালেন্সিয়াকে উড়িয়ে দেওয়ার পর এবার বৃহস্পতিবার রাতে ইউরোপা লিগে নিজেদের দ্বিতীয় লেগে নাপোলিকে ৪-২ ব্যবধানে হারাল কাতালান ক্লাবটি।দুই লেগ মিলিয়ে ৫-৩ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে শেষ ষোলো নিশ্চিত করলো জাভি হার্নান্দেসের দল।

আরমান্দো ম্যারাডোনা স্টেডিয়ামে খেলতে নেমে শুরু দেখেই আক্রমণের পসরা সাজায় বার্সেলোনা। অষ্টম মিনিটে দারুন এক কাউন্টার আক্রমণে জর্দি আলবার গোলে এগিয়ে যায় তারা। নিজেদের অর্ধ থেকে অবামেয়াং বল নিয়ে খানিকটা এগিয়ে গিয়ে বল বাড়িয়ে দেন আদামা ত্রাওরের উদ্দেশ্যে, ত্রাওরে বল নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নাপোলির ডি বক্সের দিকে এগোচ্ছিলেন, তাকে আটকাতে পিছনে ছুটছিলেন নাপোলির তিন ডিফেন্ডার। তাই ডান দিকে থাকা জর্দি আলবার কাছে পাস বাড়ান ত্রাওরে। আলাবা দেখে শুনে বক্সে ঢুকে কাছের পোস্টে লক্ষ্যভেদ করেন।  

১৩তম মিনিটে স্কোরলাইন দ্বিগুণ করেন ফ্রাংকি ডি ইয়ং। ডি বক্সের বাইরে থেকে বুলেট গতির শটে নাপোলির জাল খুঁজে নেন ডাচ এই মিডফিল্ডার। ২৩তম মিনিটে বক্সের ভেতর ওসিমহেনকে টের স্টেগেন ফেলে দিলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। দারুণ স্পট কিকে ব্যবধান কমান নাপোলির স্ট্রাইকার লরেঞ্জো ইনসিগনে। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে আরও একটি পেরেক ঠুকে দেয় কাতালানরা। , বাঁ দিক থেকে জর্দি আলবার নিচু ক্রস বক্সের ভেতরে ডান পায়ে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বাম পায়ে শটে দুরের পোস্টে লক্ষ্যভেদ করে জেরার্দ পিকে।  

বিরতির পর খেলতে নেমে ৫৯তম মিনিটে অবামেয়াংয়ের গোলে ব্যবধান আরও বাড়ায় বার্সেলোনা। আদামা ত্রাওরের দারুন পাসে বক্সের ভেতর থেকে ডান পায়ের শটে বল জালে জড়ান গ্যাবন জাতীয় দলের এই অধিনায়ক। বার্সেলোনার জার্সিতে এটি তার চতুর্থ গোল। ৮৭ মিনিটে পলিতানোর গোলে এক গোল শোধ দেয় নাপোলি। যা শুধু ব্যবধানই কমিয়েছে।