দিন যত যাচ্ছে, ততই বার্সার সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়ে দেয়ার দিন ঘনিয়ে আসছে লিওনেল মেসির। জুনের ৩০ তারিখ হবে ন্যু ক্যাম্পে মেসির শেষ দিন। তার আগে অবশ্য বার্সার জার্সি গায়ে শেষ ম্যাচটি খেলতে নামার কথা ছিল শনিবার এইবারের বিপক্ষে। কিন্তু সেটা আর হচ্ছে না। এই ম্যাচের আগেই মেসিকে ছুটি দিয়ে দিলেন কোচ রোনাল্ড কোম্যান। বৃহস্পতিবার যে কারণে দলের সঙ্গে অনুশীলনেও যোগ দেননি মেসি।

লা লিগায় এবারের মৌসুমে শনিবারই শেষ ম্যাচ খেলবে বার্সেলোনা। প্রতিপক্ষ এইবার। লিগ শিরোপা যে এবারও বার্সা জিতছে না, তা পুরোপুরি নিশ্চিত হয়ে গেছে আগের ম্যাচে ঘরের মাঠে সেল্টা ভিগোর কাছে ২-১ গোলে হারের পরই। কারণ, শেষ ম্যাচে কোনোভাবেই অ্যাটলেটিকো মাদ্র্রিদ কিংবা রিয়াল মাদ্রিদকে ছোঁয়ার সাধ্য নেই মেসিদের।

সে হিসেবে এইবারের বিপক্ষে বার্সার ম্যাচটি শুধুই আনুষ্ঠানিকতা। যদি হোঁচট খায়, তাহলে সেভিয়া কিন্তু বার্সাকে পেছনে ফেলে উঠে আসতে পারে তৃতীয় স্থানে। বার্সা চলে যেতে পারে চতুর্থ স্থানে।

আপাতত পয়েন্ট টেবিল নিয়ে ভাবনা পরে। মূল ভাবনা হলেন মেসি। বর্তমান পরিস্থিত অনুসারে সেল্টা ভিগোর কাছে বার্সার হারের ম্যাচটিই হচ্ছে কাতালানদের হয়ে মেসির শেষ ম্যাচ? ওই ম্যাচে যে গোলটি করেছিলেন, সেটিই কী তবে বার্সার হয়ে মেসির শেষ গোল?

এইবারের বিপক্ষে ম্যাচের আগে আচমকাই ছুটি দেয়া হল মেসিকে। অর্থ্যাৎ, বার্সার হয়ে আর শেষ ম্যাচটা খেলা হচ্ছে না মেসির। আগের ম্যাচটাই ছিল সর্বশেষ? বৃহস্পতি এবং শুক্রবার দলের সঙ্গে অনুশীলন না করার কারণে প্রশ্ন উঠেছে, বার্সেলোনায় মেসির দিন তাহলে শেষ?

মেসিকে ছুটি দেয়া নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে বার্সেলোনার ভেতর এবং বাইরে। কারো কারো ধারণা, তবে কী নতুন ক্লাবে যাওয়ার আগে তিনি যাতে মানসিক ভাবে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন, সে জন্যেই মেসি আগেভাগে ছুটি চেয়ে নিয়েছেন?

গত মৌসুমেই ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন মেসি। কিন্তু আইনি জটিলতা এবং বার্সা কর্মকর্তাদের চাপের মুখে সে যাত্রায় তিনি আর ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে পারেননি।

মেসিকে রাখার পর অনেক প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছিল তাকে। ৩০ গোল করে মেসি নিজের ভূমিকা পালন করলেও, গত এক বছরে ক্লাবে বদলায়নি কিছুই। লা লিগা এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ- দুই’ই হাতছাড়া হয়েছে। জিতেছে কেবলমাত্র কোপা ডেল রে।

যদিও বার্সার নতুন সভাপতি হুয়ান লাপোর্তা এক কথায় জানিয়ে দিয়েছেন, তারা মেসিকে ছাড়বেন না। নতুন করে চুক্তি করবেন। কিন্তু আর মাত্র ৫ সপ্তাহের কিছু বেশি বাকি চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে।

এর মধ্যে নতুন চুক্তির বিষয়ে কোনো কিছুই শোনা যায়নি। মেসির পক্ষ থেকেও কোনো বক্তব্য আসেনি। যার ফলে, বোঝা যাচ্ছে না মেসি থাকবেন নাকি চলে যাবেন।

যদি চলেই যান, তাহলে নিশ্চিত বার্সার ঐতিহ্যবাহী মেরুন-নেভি ব্লু জার্সিটা আর তার গায়ে উঠবে না। এই জার্সি পরে শেষ ম্যাচটা খেলে ফেলেছেন তিনি। শেষ গোলটাও করে ফেলেছেন মেসি।