করোনা মহামারি ওলটপালট করে দিচ্ছে পুরো বিশ্বকে। বদলে যাচ্ছে পুরনো হিসেব। পাল্টে যাচ্ছে ব্যবসার ধরন। অনেক বড় বড় কোম্পানি রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে। তেমনই এক প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় শপিং মল কোম্পানি ‘ওয়াশিংটন প্রাইম গ্রুপ’। ওহাইওভিত্তিক কোম্পানিটি নিজেদেরকে দেউলিয়া ঘোষণার আবেদন করে আদালতে দায়মুক্তির আর্জি জানিয়েছে।

স্থানীয় সময় ১৪ জুন কোম্পানিটি আদালতে এ আবেদন জানায় বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনবিসি। এ আবেদন মঞ্জুর হলে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন নগরীতে থাকা কোম্পানিটির শতাধিক শপিংমল চিরতরে বন্ধ হয়ে যাবে।

ওয়াশিংটন প্রাইম গ্রুপের ভাষ্য, চলমান এই বৈশ্বিক মহামারি তাদের শপিংমল ব্যবসা গুটিয়ে নিতে বাধ্য করছে। তাই তারা দেউলিয়া ঘোষণার আবেদন করেছেন। তবে আদালতের অনুমোদন পাওয়ার আগ পর্যন্ত তাদের কার্যক্রম চলবে।

এ বিষয়ে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত এক বছরে ওয়াশিংটন প্রাইম গ্রুপের শেয়ার নেমেছে অন্তত ৬০ শতাংশ। কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহী লি কনফর্টি বলেছেন, শপিংমলগুলো পুরোপুরি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত কার্যক্রম চালিয়ে যেতে কোম্পানির অর্থনৈতিক কাঠামো পুনর্বিন্যাস করা হবে।

মার্কিন সমাজ ও জীবনধারার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে চোখ ধাঁধানো শপিংমল। কিন্তু এখন তা একে একে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এ বাস্তবতার কথা অনেকের কাছেই অভাবনীয়। দেশটিতে শপিংমল ব্যবসার এ পরিবর্তন ঘটছে দ্রুত। এখন আমাজন ও অন্যান্য অনলাইন ডেলিভারির গাড়ি সর্বত্র দেখা যায়। এ পরিবর্তনের ফলে এ ব্যবসা-বাণিজ্যের ভবিষ্যৎ নিয়ে উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

করোনার কারণে প্রায় এক বছর যুক্তরাষ্ট্রের সব শপিংমল বন্ধ ছিল। ফলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলো অনলাইন মার্কেটপ্লেসের তুলনায় প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে। এ কারণে তারা ব্যবসা গুটিয়ে নিতে বাধ্য হচ্ছে।

গত বছরও যুক্তরাষ্ট্রে দুটি শপিং মল কোম্পানি নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণার আবেদন জানায়।