তীব্র প্রতিবাদের মুখে অবশেষে দামেস্ক গেট থেকে পিছু হটল ইসরায়েলি পুলিশ। সেখানে তাদের দেয়া ব্যারিকেড সরিয়ে রোববার রাতে রীতিমতো বিজয় উল্লাসে মেতে ওঠে ফিলিস্তিনিরা। প্রায় দু’সপ্তাহ আন্দোলনের মাধ্যমে ঐতিহাসিক চত্বরটিতে রমজান উপলক্ষে আবারও সমবেত হওয়ার অনুমতি পেল তারা।

দামেস্ক গেট পূর্ব জেরুজালেমের ইসরায়েল অধিকৃত এলাকার মধ্যে পড়ে। এ বছর রমজানের শুরু থেকেই ফিলিস্তিনের ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা সেখানে প্রার্থনা করতে গিয়ে বাধা পান। এ নিয়ে পরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের খবর অনুসারে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে দামেস্ক গেটের সামনে গত বছর রমজান পালন বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। এবারও সেখানে ব্যারিকেড দিয়ে রেখেছিল ইসরায়েলি পুলিশ। এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দেয় ফিলিস্তিনি মুসলিমদের মধ্যে। শুরু হয় প্রতিবাদ। একপর্যায়ে তা সহিংসতায় রূপ নেয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীরা পুলিশের দিকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। ইসরায়েলি পুলিশও লাঠি-সোটা নিয়ে, দুর্গন্ধযুক্ত পানি নিক্ষেপ করে ফিলিস্তিনিদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালায়।

আন্দোলন ধীরে ধীরে পূর্ব জেরুজালেম ছাড়িয়ে পৌঁছে যায় ইসরায়েলের দখলে থাকা পশ্চিম তীরেও। এরপর গাজা থেকে ইসরায়েলের দিকে কয়েক দফায় রকেট হামলা চালায় ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো।

তবে সহিংসতা চরম আকার ধারণ করে গত বৃহস্পতিবার। সেদিন ফিলিস্তিনি প্রতিবাদকারীরা জেরুজালেমের পুরোনো শহরের প্রবেশপথ দামেস্ক গেটের কাছে জড়ো হয়েছিলেন। তখন কট্টর জাতীয়তাবাদী ইহুদিদের দল লেহাভার সমর্থকরা ‘আরবদের মৃত্যু পর্যন্ত’ স্লোগান দিতে দিতে গেটের দিকে এগিয়ে যায়। এরপরই শুরু হয় তুমুল সংঘর্ষ।

সংঘর্ষে শতাধিক ফিলিস্তিনি আহত হন। এসময় ইসরায়েলি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন তাদের আরও অন্তত ৫০ জন।

তবে এরপর ধীরে ধীরে উত্তেজনা কমতে থাকে। রোববার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, ফিলিস্তিনিরা সন্ধ্যার পর দামেস্ক গেটের ব্যারিকেড সরিয়ে ফেলছেন। অবশ্য ইসরায়েলি পুলিশ বলছে, তাদের কাছে ব্যারিকেড সরানোর নির্দেশ এসেছিল।

ইসরায়েলি পুলিশের এক মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেন, ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় নেতা এবং দোকান মালিকদের সঙ্গে পরামর্শের পরে ব্যারিকেডগুলো সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। তার দাবি, জেরুজালেমে ‘সকলের জন্য শান্তি ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে’ এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

দামেস্ক গেটে সমবেত হওয়ার অনুমতি পাওয়ার পরপরই রোববার রাত থেকে সেখানে আনন্দ-উল্লাস শুরু করেন ফিলিস্তিনিরা। এসময় অনেকের হাতে ছিল ফিলিস্তিনের পতাকা। তবে ইসরায়েলি পুলিশ পতাকাগুলো ছিনিয়ে নিতে গেলে এ নিয়ে সেখানে আরেক দফা হাতাহাতি হয়।

১৯৬৭ সালের যুদ্ধে পূর্ব জেরুজালেম দখল করে ইসরায়েল। ইসরায়েলি সরকার প্রাচীন শহরটিকে তাদের রাজধানী ঘোষণা করেছে, যদিও হাতেগোনা কিছু দেশছাড়া আন্তর্জাতিকভাবে এখনও এর স্বীকৃতি মেলেনি।

বিপরীতে ফিলিস্তিনিদের দাবি, ভবিষ্যৎ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের একক রাজধানী হবে এই পূর্ব জেরুজালেম।