নরসিংদীর ভেলানগরে হরতাল কর্মসূচিতে মধ্যযুগীয় কায়দায় দেশীয় অস্ত্রসহ ঘােড়ায় চড়ে উসকানিমূলক স্লোগান ও যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি তথা পিকেটিং করা সেই যুবককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

গ্রেফতার ওই যুবকের নাম- মো. সৈকত হোসেন (২০)।সৈকত নরসিংদীর পলাশ থানার চালুয়ার চর গ্রামের মাে. দেলােয়ার হােসেনের ছেলে।

রোববার (৪ এপ্রিল) রাতে র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, শনিবার (৩ এপ্রিল) র‍্যাব সদর দপ্তরের গােয়েন্দা দল এবং র‍্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ির দুর্গম এলাকায় অভিযান চালিয়ে সৈকত হােসেনকে গ্রেফতার করে।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কালে একটি চক্র দেশের কয়েকটি জেলায় বিশৃঙ্খলা, সহিংসতা ও নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড সংঘটিত করে। গত ২৮ মার্চ নরসিংদীর ভেলানগরে মাে. সৈকত হােসেন (২০) নামে এক যুবক মধ্যযুগীয় কায়দায় ঘােড়ায় চড়ে সামনে থেকে উসকানিমূলক স্লোগান দেয়, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও উত্তেজনা ছড়ায়। সৈকত হােসেনসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নাশকতা সৃষ্টিকারী দল যানবাহন চলাচলে জোরপূর্বক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে জনমনে আতংক ছড়ায়।

এই ঘটনাটির ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়। এই প্রেক্ষিতে র‍্যাব গোয়েন্দা নজরদারি চালায়। এর ধারাবাহিকতায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি জানান, জনমনে ভীতি ও ত্রাস সৃষ্টি ও নাশকতা করার দায়ে গ্রেফতার আসামী সৈকতের বিরুদ্ধে নরসিংদী মডেল থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়।