হলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। গুণী এই অভিনেত্রী হলিউড সিনেমায় সব থেকে বেশি পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত অভিনেত্রীদের তালিকাতেও রয়েছেন সবার উপরে। পরিচালক হিসেবেও তার খ্যাতি কম নয়।

২০১১ সালে ‘ল্যান্ড অফ ব্লাড’, ২০১৪ সালে ‘আনব্রোকেন’, ২০১৫ সালে ‘বাই দ্য সি’ এবং তার বছর দুই পর ‘ফাস্ট দে কিল্ড মাই ফাদার’ সিনেমা পরিচালনা করেন জোলি।

তবে সিনেমার সঙ্গে থাকার পাশাপাশি ৪৬ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীর আছে দামি আর আধুনিক গাড়ি সংগ্রহের নেশা। এক নজরে দেখা আসা যাক এখন অব্দি জোলির সংগ্রহে থাকা গাড়িগুলো-

২০০৭ বিএমডব্লিউ হাইড্রোজেন সেভেন
জার্মান গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বিএমডব্লিউ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নতুন এই মডেলটি নিয়ে আসার পরই বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করে। সেই সময় জোলিই যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম ক্রেতা হিসেবে গাড়িটি ক্রয় করেন। এক লাখ ১৮ হাজার মার্কিন ডলারে ক্রয়কৃত গাড়িটি জোলি প্রথম জনসম্মুখে আনেন প্রাক্তন স্বামী ব্র‍্যাড পিটসহ তার একটি সিনেমার প্রিমিয়ার শোতে।

রেঞ্জ রোভার রউগ
তারকাদের প্রিয় গাড়ির ব্র্যান্ডগুলোর মাঝে অন্যতম একটি রেঞ্জ রোভার। এক লাখ মার্কিন ডলারের বেশি দামের এই গাড়িটি এসইউভি দুটি মডেল নিয়ে সে সময় বাজারে আসে। জোলি খরিদ করেন ৪.৪ এসডিভি ৮ ডিজেল ইঞ্জিনের রউগ। দারুণ সব সরঞ্জামে সজ্জিত এই গাড়িটি জোলির পছন্দের গাড়িগুলোর একটি।

২০১৩ লেক্সাস এলএস ৪৬০ এফ
হটকার্স ডটকম তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, লেক্সাস এলএস ৪৬০ জোলির পছন্দের গাড়িগুলোর মধ্যে অন্যতম। তাকে ক্যালিফোর্নিয়ায় অসংখ্যবার এই গাড়িটিসহ দেখা গেছে। অসাধারণ এই গাড়িটি ৯০ হাজার ডলার দিয়ে কিনেছিলেন জোলি।

জাগুরা এক্স জে
জোলির গ্যারেজে থাকা দারুণ সব গাড়ির মাঝে অন্যতম একটি জাগুরা এক্স জে। গাড়িটির দাম ৮৫ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার। উচ্চগতিসম্পন্ন এই গাড়িটি বছর খানেক আগেই নিজ গ্যারেজে নিয়ে আসেন জোলি। প্রায় সময়ই শুটিংয়ে জাগুরা এক্স জে-সহ দেখা মেলে তার।

ক্যাডিল্যাক এসক্লেড ইএসভি
ক্যাডিল্যাক এসক্লেড ইএসভি তার অসাধারণ লুকের জন্য পুরো দুনিয়াজুড়েই বিখ্যাত। বিলাসবহুল এসইউভির ট্রাঙ্ক ভলিউম সাধারণত ৪৩০ থেকে ২৬৭০ লিটার পর্যন্ত হয়। গাড়িটির ইঞ্জিন ৪২৬ হর্সপাওয়ার সম্পন্ন। ২০১৬ সালে গাড়িটি ক্রয় করেন জোলি।