আগে থেকেই জানা, করোনার কারণে এবারের এশিয়া কাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। শুধু আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করাই বাকি ছিল। অবশেষে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) পক্ষ থেকে রোববার বিজ্ঞপ্তি আকারে জানিয়ে দেওয়া হল যে, এ বছর আর বসছে না এশিয়া কাপ ক্রিকেটের আসর।

গত বুধবার (১৯ মে) শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা জানিয়েছিলেন, এ বছর আর এশিয়া কাপ ক্রিকেট হবে না। একই সময় তিনি জানিয়েছিলেন, পরবর্তীতে কবে আয়োজন সম্ভব হবে, তা বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে এসিসি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে বলে জানিয়েছেন তিনি। অবশেষে সেই ঘোষণাই দিলো এসিসি।

গত বছর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল এশিয়া কাপ। আয়োজক ছিল পাকিস্তান; কিন্তু করোনা মহামারির কারণে সেটাকে স্থগিত করা হয়। ঠিক হয় চলতি বছর আয়োজন করা হবে। এ বছর জুনে শ্রীলঙ্কার মাটিতে এশিয়া কাপ আয়োজনের পরিকল্পনা করেছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। যদিও তাদের সেই প্রচেষ্টাতেও পানি ঢেলে দিল ভারত।

টিম ইন্ডিয়া বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ওঠায় জুনে এশিয়া কাপ আয়োজন সম্ভব নয়, এটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল প্রায়। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে রোববার এক্সিকিউটিভ বোর্ডের মিটিংয়ের পর এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, চলতি বছরের এশিয়া কাপ পিছিয়ে দেওয়া হল ২০২৩ সালে।

সঙ্গে এটাও জানানো হয়েছে যে, ২০২২ সালেও এশিয়া কাপ আয়োজিত হবে, যা আগে থেকেই নির্ধারিত রয়েছে। তার দিনক্ষণ পরবর্তী সময়ে জানিয়ে দেবে এশিয়ান ক্রিকেট সংস্থা। আপাতত এ বছর ঠাসা আন্তর্জাতিক ক্রীড়াসূচির জন্য টুর্নামেন্ট আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না। সুতরাং ২০২২ ও ২০২৩, পরপর দু’বছরে দু’টি এশিয়া কাপ আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এসিসি।