নাতাঞ্জ পারমাণবিক কেন্দ্রে বিস্ফোরণের কয়েকদিন পর ৬০ শতাংশ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইরানের পরমাণু শক্তি সংস্থার প্রধান আলি আকবর সালেহি। রোববার ঘটা এই বিস্ফোরণের জন্য ইসরায়েলকে দায়ী করেছে ইরান। খবর রয়টার্সের।

শুক্রবার আলি আকবর সালেহি বলেছেন, ‘আমরা ঘণ্টায় নয় গ্রাম করে ৬০ শতাংশ সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম উৎপাদন করছি। তবে এটি কমিয়ে ঘণ্টায় ৫ গ্রাম সমৃদ্ধকরণের জন্য আমরা কাজ করছি।’

এর আগে ইরানের সংসদের স্পিকার মোহাম্মদ কালিবাফ বলেছেন, ইরানি বিজ্ঞানীরা স্থানীয় সময় রাত ১২:৪০ মিনিট থেকে সফলভাবে ৬০ শতাংশ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ শুরু করেছে।
টুইটারে কালিবাফ লিখেছেন, ‘ইরানি জাতির মনোবল এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটাতে পারে যে তা কোনো ষড়যন্ত্রকে ব্যর্থ করে সক্ষম।’

ইরানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দেশটির প্রধান পরমাণবিক কেন্দ্র নাতাঞ্জে ইসরায়েলের নাশকতার জবাবে তারা ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ সর্বোচ্চ পর্যায় পর্যন্ত বৃদ্ধি করবে।

ভিয়েনায় ইরান ও আন্তর্জাতিক শক্তিগুলো ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তি নবায়নের ব্যাপারে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। তিন বছর আগে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই চুক্তি থেকে সরে এসে ইরানের ওপর পুনরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এরপর ইরানও তাদের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নেয়।

ভিয়েনায় ইরানের পারমাণবিক চুক্তি বিষয়ক আলোচনার প্রধান সমন্বয়ক আব্বাস আরাকসি এ সপ্তাহের শুরুতে বলেছেন, ইরান নাতাঞ্জে এক হাজার অ্যাডভান্সড সেন্ট্রিফিউজ মেশিন চালু করবে।

রয়টার্সকে এক ইরানি কর্মকর্তা বলেছেন, ‘৬০ শতাংশ সমৃদ্ধকরণ অল্প পরিমাণে হবে।’

ইসরায়েল ইরানের পারমাণবিক চুক্তির বিরোধীতা করে আসছে। নাতাঞ্জের বিস্ফোরণ সম্পর্কে এখনও দেশটির পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।