শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে বিপর্যস্ত পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ এলাকা। এর মধ্যেই বন থেকে একটি বাঘ বেরিয়ে এসেছে লোকালয়ে। ফলে আতঙ্ক ছড়িয়েছে জেলার কুলতলির মৈপিট উপকূল থানা এলাকায়। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বুধবার সকালে লোকালয়ে বাঘ দেখতে পান কিছু বাসিন্দা। এর ফলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। খবর পেয়ে জাল ও ট্র্যাঙ্কুলাইজার বন্দুক নিয়ে রওনা দেন কুলতলির বন বিভাগের কর্মীরা। তবে সকাল ১১টা পর্যন্ত বাঘটিকে বাগে আনা যায়নি বলে খবর পাওয়া গেছে।

ইয়াশের জেরে প্রবল জলোচ্ছ্বাসে কুলতলি বিধানসভার সাত/আটটি জায়গায় নদীবাঁধে ফাটল ধরেছে। এর ফলে গ্রামের ভেতরে পানি ঢুকতে শুরু করেছে। যে কোনও মুহূর্তে বাঁধ পুরোপুরি ভেঙে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কুলতলির তৃণমূল বিধায়ক গণেশ মণ্ডল বলেন, ‘সবাইকে আমরা সতর্ক থাকতে বলেছি। এলাকার বাসিন্দাদের নিকটবর্তী সাইক্লোন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।’

এদিকে, ভারতের ওড়িশায় ইতোমধ্যেই ইয়াস আঘাত হেনেছে। রাজ্যের বালেশ্বরের কাছে ধামরা উপকূলে ঘণ্টায় ১৩০ থেকে ১৪০ কিলোমিটার বেগে এটি আছড়ে পড়ছে। ঘূর্ণিঝড়টির সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫৫ কিলোমিটার হতে পারে। আগামী ৩ ঘণ্টা ওড়িশাসহ ভারতের উপকূলীয় বিভিন্ন অঞ্চলে তাণ্ডব চালাবে।