প্রাণঘাতী করোনায় খুলনার পৃথক তিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (২ জুলাই) সকাল ৮ টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় তাদের মৃত্যু হয়।

মারা যাওয়া ১১ জনের মধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ৮ জন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২ ও বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনা হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২০৪ জন, যার মধ্যে রেড জোনে ১১০ জন, ইয়ালো জোনে ৪১ জন, আইসিইউতে ২০ জন ও এইচডিসিতে ২০ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৬ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৪ জন।

জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, খুলনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- খুলনার হাজী মহসিন রোডের নীতি রাণী (৫০) ও ডুমুরিয়ার মাধুরী মন্ডল (৬০)। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৬ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮ জন।

বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের স্বত্তাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় যশোরের মনিরামপুরের নিরঞ্জন পাল নামের এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও ১০৯ জন, এরমধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ৯ জন, আর এইচডিইউতে আছেন ১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩৫ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬ জন।