করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে জনসাধারণকে সচেতন করতে খুলনায় অভিযান পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণকল্পে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানে মাস্ক না পরায় ১৮৯টি মামলায় ৭৫ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা করা হয় এবং ৩৯ জনকে আটক করা হয়।
জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেল সূত্র জানায়, ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ বাস্তবায়নে এবং করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব অধিকতর ফলপ্রসূ করার নিমিত্ত জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে জেলা প্রশাসন কর্তৃক মাইকিং ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার উপজেলাসমূহে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)-গণ। একই সময়ে মহানগরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়।
এসময় সাধারণ মানুষকে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের আহবান জানানো হয় এবং স্বাস্থ্যবিধি না মানলে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের ব্যাপারে প্রচারণা চালানো হয়। এছাড়া দুঃস্থ অসহায় মানুষকে মাস্ক বিতরণ করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ। অভিযানে মাস্ক পরিধান না করার অপরাধে খুলনা জেলায় মোট ১৮৯টি মামলায় মোট ৭৫ হাজার ৫ শত টাকা জরিমানা এবং ৩৯ জনকে আটকাদেশ প্রদান করা হয়। ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮’ এবং ‘দণ্ডবিধি, ১৮৬০’ এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।
মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন পুলিশ ও আনসারের সদস্যগণ। করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।