জেলা করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী খুলনা জেলা ও মহানগরীতে ১৩ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত নিম্নোক্ত বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

    খুলনায় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধির কারণে সকাল নয়টা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত দোকানপাট, মার্কেট, শপিংমল ও হোটেলসমূহ খোলা থাকবে। তবে মার্কেটের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থ্য রাখতে হবে। ‘স্বাস্থ্যবিধি না মানলে মৃত্যু ঝুঁকি আছে’ এই সতর্কবাণী অবশ্যই দৃশ্যমান স্থানে রাখতে হবে। দোকানসমূহে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে এবং দুই জনের মধ্যে তিন ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। হোটেল-রেস্তোরাগুলো পার্সেলকৃত/প্যাকেটজাত খাবার সরবরাহ করতে পারবে। ঔষধের দোকান সার্বক্ষনিক খোলা রাখা যাবে। কেসিসি সন্ধ্যা বাজার ও সোনাডাঙ্গা ট্রাক স্ট্যান্ড সংলগ্ন পাইকারী কাঁচাবাজার রাত নয়টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। বেবী ট্যাক্সি ও ব্যাটারিচালিত অটো রিক্সাসহ সকল ধরণের যানবাহনে অর্ধেকের বেশি যাত্রী বহন করতে পারবে না। যানবাহনের চালকসহ প্রত্যেক যাত্রীদের অবশ্যই মাস্ক পরিধানসহ সকল স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে। এছাড়া পাইকগাছা উপজেলার পৌরসভা এলাকার ক্ষেত্রে গত ৯ জুন তারিখে জারীকৃত বিধি-নিষেধসমূহ বলবৎ থাকবে।

    উক্ত বিধি-নিষেধ খুলনা জেলা ও মহানগরের সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোরভাবে মেনে চলার অনুরোধ করা হয়েছে। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

    খুলনার জেলা প্রশাসক এবং করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ হেলাল হোসেন এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ সকল তথ্য জানান।