বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ শেষ। সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবে পর্দা নামবে দেশের সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতার। এখন হিসেবে মিলানোর পালা- গেমসে কেমন করলেন দেশের তারকা ক্রীড়াবিদরা?

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখারায় অনুষ্ঠিত সর্বশেষ সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে বাংলাদেশ রেকর্ড ১৯ স্বর্ণপদক পেয়েছিল। এর মধ্যে টিম ইভেন্টে দুটি (ক্রিকেট), ১৭টির মধ্যে সর্বাধিক ১০টি আরচারিতে, তিনটি কারাতে, দুটি ভারোত্তোলনে এবং একটি করে তায়কোয়ানদো ও ফেন্সিংয়ে।

দক্ষিণ এশিয়ান গেমসে যারা স্বর্ণ জিতেছিলেন তারা কেমন করলেন বাংলাদেশ গেমসে। এসএ গেমসে ব্যক্তিগতভাবে স্বর্ণজেতা ক্রীড়াবিদদের মধ্যে নিঃসন্দেহে বড় তারকা রোমান সানা।

অলিম্পিক গেমসে কোয়ালিফাই করা এই তারকা আরচারের সময় ভালো যাচ্ছে না ঘরোয়া আসরগুলোতে। বাংলাদেশ গেমসে কোনো পদকই পাননি রোমান। এসএ গেমসে স্বর্ণজয়ের পর জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ ও বাংলাদেশ গেমসসহ তিনটি প্রতিযোগিতায় নিজের নামের সুবিচার করতে পারেননি তিনি।

আরচারিতে এসএ গেমসে ব্যক্তিগত ইভেন্টে স্বর্ণজয়ী আরো তিনজন বাংলাদেশ গেমসে ব্যক্তিগত বিভাগে শ্রেষ্ঠত্ব দেখাতে পারেননি। তারা হলেন সোহেল রানা, ইতি খাতুন ও সোমা বিশ্বাস। তবে এই তিনজনের মধ্যে সোহেল রানা ও ইতি টিম ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন।

ভারোত্তোলনে এসএ গেমসে স্বর্ণজয়ী দুই তারকা জিয়াউল ইসলাম ও মাবিয়া আক্তার সীমান্ত বাংলাদেশ গেমসে যথারীতি দাপট দেখিয়ে স্বর্ণ জিতেছেন।

এসএ গেমসে স্বর্ণ জিতেছিলেন তিন কারাতেকা। আল-আমিন, হুমায়রা আক্তার অন্তরা ও মারাজান আক্তার প্রিয়া- এই তিনজনই বাংলাদেশ গেমসে নিজেদের ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন।

এসএ গেমসে স্বর্ণজয়ী ভারোত্তোলক দিপু চাকমাও বাংলাদেশ গেমসে স্বর্ণ জিতে তার যোগ্যতা প্রমান করেছেন। ফেন্সিংয়ে স্বর্ণজয়ী ফাতেমা মুজিবও বাংলাদেশ গেমসে স্বর্ণ জিতে নিজের নামের সুবিচার করেছেন।