অবশেষে সত্য হলো গুঞ্জন। জাতীয় দল জিম্বাবুয়ে সফরে যাওয়ার আগেই বিশেষজ্ঞ ব্যাটিং ও বোলিং কোচ নেয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

টাইগারদের নতুন স্পিন বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি বাঁহাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথকে। পাশাপাশি ব্যাটিং কোচ হিসেবে নেয়া হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক বাঁহাতি ব্যাটসম্যান অ্যাশওয়েল প্রিন্সকে।

শনিবার দুপুরের পর এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতির মাধ্যমে এ খবর জানিয়েছে বিসিবি।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকেই বাংলাদেশ দলের সঙ্গে নিয়মিত নন আগের স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। শুধুমাত্র চলতি বছর নিউজিল্যান্ড সফরে কাজ করেছেন তিনি। অন্যসময় ছিলেন দেশেই।

ভেট্টোরির অনুপস্থিতিতে সোহেল ইসলামকে দিয়ে স্পিন বোলিং কোচের কাজ চালিয়েছে বিসিবি। তবে ভেতরে ভেতরে ঠিকই খোঁজ করেছে বিদেশি কোচের। অবশেষে শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি স্পিনার হেরাথকে দেয়া হয়েছে এ দায়িত্ব।

আসন্ন জিম্বাবুয়ে সফর দিয়েই শুরু হবে হেরাথের বাংলাদেশ কোচিং অধ্যায়। বর্তমান চুক্তি অনুযায়ী, তিনি কাজ করবেন চলতি বছর হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত।

প্রায় দুই দশকের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে টেস্ট ইতিহাসের সফলতম বাঁহাতি স্পিনার হয়েই খেলা ছেড়েছেন ৪৩ বছর বয়সী হেরাথ। ১৯৯৯ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত বিস্তৃত টেস্ট ক্যারিয়ারে ৯৩ ম্যাচ খেলে ৪৩৩ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

এছাড়া রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে তার শিকার ৯২ উইকেট। বিশেষজ্ঞ স্পিন বোলিং কোচ হিসেবে আইসিসি স্বীকৃত লেভেল-৩ কোচিং সার্টিফিকেট রয়েছে হেরাথের।

অন্যদিকে অ্যাশওয়েল প্রিন্সকে আপাতত জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য ব্যাটিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তিনি স্থলাভিষিক্ত হলেন আগের ব্যাটিং কোচ জন লুইসের। যিনি সবশেষ ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে দায়িত্ব পালন করেছেন।

প্রিন্সের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার ততটা সাফল্যমণ্ডিত নয়। তিন ফরম্যাট মিলে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ১১৯ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। যেখানে ১১ সেঞ্চুরিতে করেছেন সাড়ে ৪ হাজারের বেশি রান। তবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার নামের পাশে রয়েছে প্রায় ১৯ হাজার রান।

হেরাথের মতো প্রিন্সেরও রয়েছে লেভেল-৩ কোচিং সার্টিফিকেট। এরই মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা `এ’ দলের ব্যাটিং কোচ ও অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।