জরুরি ব্যবহারের জন্য নিজেদের দেশে তৈরি টিকার অনুমোদন দিয়েছে ইরান। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের এক খবরে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। ইরানের এই টিকার নাম দেয়া হয়েছে কোভ-ইরান বারেকাত।

সোমবার ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সায়ীদ নামাকি আরাক ইউনিভার্সিটি অব মেডিক্যাল সায়েন্সে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নিজেদের তৈরি টিকার জরুরি ব্যবহারের ঘোষণা দেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাঈদ নামাকি বলেন, সামনের শরৎকালের মধ্যেই ইরানের সব নাগরিককে ভ্যাকসিনের আওতায় আনার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে সরকার। তিনি বলেন, এই ভ্যাকসিন তৈরি করতে সবচেয়ে কম খরচ হচ্ছে এবং এর পার্শপ্রতিক্রিয়া খুবই কম। অন্যদিকে, এটি সারাবিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত এবং কার্যকরভাবে করেনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ করবে।

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে বিভিন্ন দেশ থেকে টিকা না পাওয়ার কারণে দীর্ঘদিন ধরেই সঙ্কটে ছিল ইরান। তাই তারা নিজ দেশের জনগণের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিজেরাই টিকা তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছে।

নিষ্ক্রিয় ভাইরাসের ওপর ভিত্তি করে ইরানের ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি সিফাফার্ম এই টিকা তৈরি করেছে। গত ডিসেম্বরেই এই টিকার নিরাপত্তা এবং কার্যকারিতা নিয়ে গবেষণা হয়।

এদিকে ইরান এবং কিউবা যৌথভাবে আরও একটি টিকা নিয়ে কাজ করছে। আগামী সপ্তাহেই নতুন এই টিকা ইরানে ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, ইরানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ৪৯ হাজার ৬৪৮। এর মধ্যে মারা গেছে ৮২ হাজার ৩৫১ জন। ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ২৬ লাখ ৮৩ হাজার ২১০ জন। দেশটিতে বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ৮৪ হাজার ৮৭।