হ্যান্সি ফ্লিক থাকছেন না- এটা চলতি মাসের শুরুতেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। জার্মান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ তাই নতুন এক কোচের খোঁজে ছিল। তাদের প্রথম পছন্দ মাত্র ৩৩ বছর বয়সী হুলিয়ান নাগেলসম্যান। কিন্তু জার্মানির আরেক ক্লাব আরবি লেইপজিগের কোচ তিনি। সেখান থেকে তাকে কিভাবে পেতে পারে বায়ার্ন।

শেষ পর্যন্ত লেইপজিগের সঙ্গে একটি চুক্তি করতে সমর্থ হয়েছে বায়ার্ন। নাগেলসম্যানের সঙ্গে লেইপজিগের যতদিনের চুক্তি ছিল, সে হিসেবে একটা জরিমানা ধরে নিয়েই তবে জার্মানির সাবেক এই সেন্টারব্যাককে কোচ হিসেবে চুক্তি করেছেন ভাবারিয়ানরা।

জার্মান জাতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ হয়নি হুলিয়ান নাগেলসম্যানের। খুব অল্প বয়সেই জড়িয়ে পড়েন কোচিংয়ে। যে কারণে, এত অল্প বয়সেই তার এমন চাহিদা তৈরি হয়েছে। মনে করা হচ্ছে, আধুনিক ফুটবলের ইতিহাসে অন্যতম তরুণ কোচ হলেন নাগেলসম্যান। বায়ার্ন তার সঙ্গে ২০২৬ সাল পর্যন্ত চুক্তি করেছে।

ইএসপিএন সকারনেট জানাচ্ছে, কোচদের ক্ষেত্রে ট্রান্সফার ফি’র রেকর্ড গড়েছেন নাগেলসম্যান। ২০১১ সালে পোর্তো থেকে আন্দ্রে ভিলাস বোয়াসকে নিয়ে আসতে চেলসি ট্রান্সফার ফি দিয়েছিল ১৫ মিলিয়ন ইউরো। এবার সেটাকেও ছাড়িয় গেছেন নাগেলসম্যান।

বায়ার্নের বর্তমান কোচ হান্সি ফ্লিক চলতি মাসের শুরুতেই ক্লাবের কাছে আবেদন জানান তাকে রিলিজ দেয়ার জন্য। অথচ, তার সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ার ২ বছর বাকি এখনও।

মূলতঃ খেলোয়াড় ট্রান্সফার নীতি এবং দর্শন নিয়ে বায়ার্নের স্পোর্টিং এক্সিকিউটিভ হাসান সালিহামিদজিকের সঙ্গে বিরোধ বাধে হান্সি ফ্লিকের। সে কারণেই তিনি স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ালেন বায়ার্নের কোচের পদ থেকে।