পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অথৈ আদিত্যকে আহ্বায়ক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে ৭ কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে, লাশ সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহত ২৪ জনের পরিবারকে আপাতত ২০ হাজার করে টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শারদীয় দুর্গোৎসবের মহালয়া উপলক্ষে রোববার দুপুর দেড়টার দিকে বোদা উপজেলার মাড়েয়া বাজার এলাকার করতোয়া নদীর আউলিয়া ঘাট থেকে ১০০ জনের মতো মানুষ শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরের দিকে যাচ্ছিলেন।

নৌকাটি কিছুদূর যাওয়ার পর দুলতে শুরু করলে মাঝি ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে নদীর মাঝখানে নৌকা ডুবে যায়। অনেকে সাঁতরে তীরে উঠলেও শিশুসহ অনেকেই ডুবে যায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ২৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ৮ শিশু, ৪ পুরুষ ও ১২ নারী রয়েছেন। তাদের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর আটজনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি ১৬ জনের লাশ নদীর পাড়ে রাখা হয়েছে। রাত ৭টা পর্যন্ত নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

এ বিষয়ে পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক জহুরুল ইসলাম বলেন, এ জেলার ইতিহাসে ভয়াবহ নৌকাডুবি এটি। এখন পর্যন্ত ২৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার কাজ চলমান রয়েছে। নিহতদের পরিবারকে ২০ হাজার করে আর্থিক অনুদান দেওয়া হবে। আর আহত চিকিৎসা খরচ বহন করবে জেলা প্রশাসন।

পিএসএন/এমঅ‌াই