ভারতের আবিষ্কৃত করোনা টিকা কোভ্যাক্সিনের দুই কোটি ডোজ কিনতে ৩২ কোটি ৪০ লাখ ডলারের চুক্তি করেছিল ব্রাজিল সরকার। তবে সেই চুক্তি করতে ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারো অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এর জেরে ভারত বায়োটেকের তৈরি করোনা টিকা কেনার চুক্তি আপাতত স্থগিত করেছে ব্রাজিল। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুসারে, ভারতের কাছ থেকে টিকা কেনার চুক্তিতে অনিয়মের অভিযোগ ওঠার পর থেকেই বিষয়টি ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্টের জন্য গলার কাঁটা হয়ে ওঠে।

গত সোমবার বোলসোনারো বলেছেন, তিনি ভারতের সঙ্গে টিকা চুক্তিতে কোনো অনিয়মের কথা জানেন না। তবে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তিনি এ সংক্রান্ত উদ্বেগের বিষয়ে প্রেসিডেন্টকে আগেই সতর্ক করেছিলেন।

ব্রাজিলে করোনার ভয়াবহ সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে বোলসোনারোর জনপ্রিয়তা অনেক কমে গেছে। দেশটিতে ইতোমধ্যে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর জন্য আগামী বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাকে ভুগতে হতে পারে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মারসেলো কুয়েরোগা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, স্থগিতাদেশ চলাকালে টিকা চুক্তিতে অনিয়মের বিষয়টি খতিয়ে দেখবে তার টিম।

এর আগে গত বৃহস্পতিবারই সিএনএন ব্রাজিল জানিয়েছিল, ব্রাজিলিয়ান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ওই চুক্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ভারতের কাছ থেকে টিকা কিনতে তুলনামূলক চড়া দাম, দ্রুত আলোচনা এবং নীতিগত অনুমোদন অপেক্ষমান থাকার উদ্বেগের বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছেন ব্রাজিলের ফেডারেল প্রসিকিউটররা। এছাড়া মহামারি নিয়ন্ত্রণে ব্রাজিল সরকারের ব্যর্থতার অভিযোগের বিষয়েও তদন্ত করছে সিনেটের একটি প্যানেল।