ভারতে করোনা পরিস্থিতি রীতিমত ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এমতাবস্থায় অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে। আগামী অক্টোবরের মাঝামাঝিতে টুর্নামেন্টটি মাঠে গড়ানোর কথা। কিন্তু এখন বিকল্প ভাবতে হচ্ছে আইসিসিকে।

যদিও আইসিসির ঘনিষ্ঠ এক সূত্র জানিয়েছে, হাতে মাস ছয়েকের মতো সময় আছে, এখনই চূড়ান্ত কিছু বলে দেয়ার সময় হয়নি। তবে ভারতের পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণে রেখেছে আইসিসি। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেও সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখে চলেছে তারা।

ভারত থেকে বিশ্বকাপ সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত না হলেও বিকল্প ভাবনা ঠিকই মাথায় রাখছে আইসিসি। সেক্ষেত্রে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি আয়োজন হতে পারে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। ভাবা হচ্ছে শ্রীলঙ্কার কথাও।

তবে দুই দেশের মধ্যে আরব আমিরাতকেই বিকল্প হিসেবে এগিয়ে রাখা হচ্ছে।কেননা সেখানকার জনসংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম এবং বিশ্বকাপ আয়োজনের সুযোগ-সুবিধাও আছে যথেষ্ট।

প্রসঙ্গত, ভারতে প্রতিদিন সাড়ে তিন লাখের মতো করোনা রোগী সনাক্ত হচ্ছে। এটা সরকারি হিসাব। বেসরকারি হিসেবে সংখ্যাটা আরও অনেক বেশি বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গত বছর করোনায় এর চেয়ে তুলনামূলক ভালো অবস্থা ছিল ভারতের। তারপরও ২০২০ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) আরব আমিরাতে সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় দেশটির বোর্ড। এবার কী হবে?

আইসিসির প্রতিনিধি দল বর্তমানে ভারতে অবস্থান করছেন। গত সপ্তাহেই বিশ্বকাপের জন্য নয়টি ভেন্যু প্রস্তাব করেছে ভারতীয় বোর্ড। ফাইনাল হওয়ার কথা আহমেদাবাদে ১ লাখ ৩০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।