ইরাক-সিরিয়া সীমান্তে মার্কিন বাহিনীর বিমান হামলার কঠোর প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিয়েছে ইরান-সমর্থিত ইরাকি সশস্ত্র সংগঠন পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটস (পিএমইউ), আরবিতে যারা হাশদ আল-শাবি নামে পরিচিত। সোমবার সংগঠনটি বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় তাদের ‘একদল নায়কোচিত যোদ্ধা শহীদ হয়েছেন’, এর যোগ্য প্রতিশোধ নেয়া হবে।

এক বিবৃতিতে হাশদ আল-শাবি বলেছে, আমাদের প্রাণপ্রিয় জাতির সুরক্ষায় ঢাল হয়ে থাকব। আমরা প্রতিক্রিয়া জানাতে এবং প্রতিশোধ নিতে পুরোপুরি প্রস্তুত।

এর আগে, গত রোববার পেন্টাগনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নির্দেশে সিরিয়া ও ইরাকে বিমান হামলা চালিয়েছে মার্কিন বাহিনী। ইরাকে মার্কিন স্থাপনা ও কর্মকর্তাদের লক্ষ্য করে সাম্প্রতিক ড্রোন হামলার জবাবে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

এক বিবৃতিতে মার্কিন সামরিক বাহিনী বলেছে, তাদের যুদ্ধবিমান সিরিয়ার দুটি এবং ইরাকের একটি স্থানে ইরান-সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর কার্যক্রম পরিচালনা ও অস্ত্রঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় কেউ হতাহত হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করেনি পেন্টাগন।

তবে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের এই বিমান হামলায় অন্তত পাঁচজন নিহত এবং আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন।

বাইডেন গত জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতাগ্রহণের পর থেকে বিদেশের মাটিতে মার্কিন বাহিনীর দ্বিতীয় হামলা এটি। এর আগে, ক্ষমতাগ্রহণের মাত্র এক মাসের মাথায় গত ফেব্রুয়ারিতে সিরিয়ায় ইরান-সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে বিমান হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি।