যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামিতে ধসেপড়া ১২ তলা ভবনটির ধ্বংসস্তূপে জীবিত ব্যক্তিদের মরিয়া হয়ে খুঁজছেন উদ্ধারকর্মীরা। এখন পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।সেখানে অন্তত ১৫৯ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শুক্রবার (২৫ জুন) পর্যন্ত ১২০ জনের সন্ধান মিলেছে। কাউন্টি মেয়রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি এ তথ্য জানায়।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মিয়ামির পার্শ্ববর্তী সার্ফসাইড এলাকায়  ১২ তলা একটি ভবন ধসে পড়ে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, ঠিক কতজন এখনও আটকা রয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ধসের সময় ঠিক কতজন ভবনে উপস্থিত ছিল, তা জানা যায়নি।

নিখোঁজ ব্যক্তিদের জীবিত উদ্ধারে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন উদ্ধার কর্মীরা। ধ্বংসস্তূপের নিচে মানুষের বেঁচে থাকার বিষয়টি টের পাচ্ছেন তারা। নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধান পেতে অপেক্ষা করছেন অনেক পরিবার।

সার্ফসাইডের অগ্নিনির্বাপণ বিভাগ জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ৩৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

উদ্ধার কাজে প্রশিক্ষিত কুকুর ও ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে। তারা ভবনটির ভূগর্ভস্থ একটি কার পার্কিংয়ের জায়গা থেকে টানেল তৈরির চেষ্টা করে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধারের চেষ্টা করছেন।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ ঘটনায় ফ্লোরিডায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। ফলে ফেডারেল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি এখন ওই অঙ্গরাজ্যের জরুরি সংস্থাকে ত্রাণ কার্যক্রমে সাহায্য করবে।

জো বাইডেন বলেছেন, ‘আমি ফ্লোরিডার জনগণকে বলতে চাই, তাদের যা সাহায্য প্রয়োজন, সরকার তা দেবে।