প্রায় দুই যুগ আগে স্ত্রী হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত সাতক্ষীরার নুরুল ইসলামকে জামিন দিয়েছেন আপিল বিভাগ।
 
রোববার (৪ এপ্রিল) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ তাকে জামিন দেন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শাহ আলম সরকার। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।   

১৯৯৬ সালের ২৪ জুন সাতক্ষীরার কলারোয়ায় স্ত্রী জোহরাকে ভাড়া করা খুনি দিয়ে হত্যা করান নুরুল ইসলাম৷ পরে মরদেহ ফেলে দেওয়া হয় পুকুরে।

এ ঘটনায় করা মামলায় ২০০১ সালে নুরুলকে যাবজ্জীবন দণ্ড দেন সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত৷

আপিলের পর ২০০৩ সালে হাইকোর্ট তার যাবজ্জীবন দণ্ড বহাল রাখেন। এর বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন নুরুল। ওই আবেদন বিচারাধীন থাকা অবস্থায় জামিন আবেদন করেন তিনি। সেই আবেদনের শুনানি নিয়ে রোববার তাকে জামিন দেওয়া হয়।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ জানান, যেহেতু নুরুল একটানা ২৩ বছরের ওপরে হাজত খেটেছেন, কোনো সময় তিনি জামিন পাননি। এ বিষয় বিবেচনায় তাকে জামিন দেওয়া হয়েছে। তবে মামলার চূড়ান্ত রায় কী হবে, তা জানার জন্য আপিল বিভাগে করা আবেদনের শুনানি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।